ডেইলি তালাশ
ডেইলি তালাশ এ আপনাদের স্বাগতম। সময়ের সাথে সবার আগে বস্তুনিষ্ঠ সত্য সংবাদ পেতে আমাদের ওয়েভ-সাইট সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।
শীতে সানস্ক্রিন কেন ব্যবহার করবেন

শীতে সানস্ক্রিন কেন ব্যবহার করবেন

গরমকালে সানস্ক্রিন যতটা গুরুত্ব পায়, ঠিক ততটাই উপেক্ষিত হয় শীতকালে। অনেকেরই ধারণা, শীতের দিনে সানস্ক্রিন ক্রিম/লোশন লাগানোর প্রয়োজন নেই। কেননা এ সময় সূর্যের তাপ কম থাকে।

ত্বক বিশেষজ্ঞদের মতে, ত্বক সুস্থ, সজীব রাখতে ও স্কিন ক্যানসারের ঝুঁকি এড়াতে গ্রীষ্মের মতো শীতেও সানস্ক্রিন জরুরি। চলুন জেনে নেওয়া যাক, কেন শীতেও সানস্ক্রিনের ব্যবহার প্রয়োজন।

পাতলা ওজন স্তর

ত্বক ধ্বংসাত্মক সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মি সারা বছর ধরেই বিকিরিত হয়, এমনকি মেঘাচ্ছন্ন দিনেও। শীতকালীন মেঘ যতই ঘন দেখাক না কেন, তাদেরকে ভেদ করে প্রায় ৮০ শতাংশ পর্যন্ত সূর্যের রশ্মি নিচে আসতে পারে। শীতকালে বায়ুর ওজন স্তরের ঘনত্ব সবচেয়ে কম থাকে। এই ওজন স্তরই সূর্যের ক্ষতিকর অতিবেগুনি রশ্মিকে শোষণ করে। ফলে এই স্তরের ঘনত্ব কম থাকলে অতিবেগুনি রশ্মির প্রভাব যায় বেড়ে। যার মানে হলো, আপনার ত্বক এ ক্ষতিকর রশ্মির সংস্পর্শে আসছে। অতিবেগুনি রশ্মির ক্ষতিকর প্রভাব থেকে বাঁচতে সানস্ক্রিন ক্রিম/লোশন অত্যন্ত জরুরি।

বয়সের ছাপ প্রতিরোধ

শীতকালে বাতাসে জলীয় বাষ্পের পরিমাণ থাকে কম। যার ফলে ত্বক অত্যন্ত শুষ্ক হয়ে যায়। শুষ্ক ত্বকে বাড়ে বলিরেখা। তাই শীতকালে সানস্ক্রিন ব্যবহার জরুরি। একাধিক গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে, নিয়মিত সানস্ক্রিন ব্যবহার করে বয়সের ছাপ এড়ানো যায়।

ক্যানসার প্রতিরোধ

সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মির প্রভাবে ত্বকের কোষের ডিএনএ ক্ষতিগ্রস্ত হয়, ডিএনএ বারবার ক্ষতিগ্রস্ত হলে স্কিন ক্যানসার সৃষ্টির ঝুঁকি থাকে। সানস্ক্রিন ব্যবহারে অনেকটাই হ্রাস পায় এই সম্ভাবনা। ৯০ শতাংশ নন-মেলানোমা স্কিন ক্যানসারের সঙ্গে সূর্যের অতিবেগুনি রশ্মির যোগসূত্র আবিষ্কার করেছেন গবেষকরা।

শীতে সানস্ক্রিন দ্রুত মুছে যায়

গরমের দিনে শরীর থেকে ঘাম বের হয়ে সানস্ক্রিন দূর হয়ে যায়। ফলে অনেকে পুনরায় সানস্ক্রিন ব্যবহারে তৎপর হয়ে থাকেন। কিন্তু শীতকালে অনেকে অনুধাবন করেন না যে, শীতের কড়া বাতাসে সানস্ক্রিন আরো দ্রুত নিঃশেষ হয়ে যায়। তাই শীতে শুধু সকালে সানস্ক্রিন ব্যবহার করে সারাদিন নিশ্চিন্তে থাকা যাবে না। ত্বক বিশেষজ্ঞরা এ মৌসুমে ২ ঘণ্টা পরপর ত্বকে সানস্ক্রিন ব্যবহারের পরামর্শ দিয়েছেন।

কত এসপিএফ-যুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করা ভালো?

এসপিএফ ১৫-এর বেশি যেকোনো সানস্ক্রিন ব্যবহার করতে পারেন। যদি অনেক বেশি সময় রোদে থাকার ব্যাপার থাকে, তাহলে ৩০ থেকে ৫০ এসপিএফ যুক্ত সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন। রোদের সংস্পর্শে আসতে পারে এমন অঙ্গ- যেমন মুখ, গলা, হাতের অনাবৃত অংশে সানস্ক্রিন লাগান। সানস্ক্রিন লাগানোর আগে অল্প করে ময়েশ্চারাইজার লাগিয়ে নিন। এতে ত্বকে আদ্রতা বজায় থাকবে। ত্বকের ধরন অনুযায়ী সানস্ক্রিন ব্যবহার করুন।###

পোস্টটি শেয়ার কারুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপনঃ

রাজনীতি

অপরাধ ও দুর্নীতি

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed By Mak Institute of Design |