ডেইলি তালাশ
ডেইলি তালাশ এ আপনাদের স্বাগতম। সময়ের সাথে সবার আগে বস্তুনিষ্ঠ সত্য সংবাদ পেতে আমাদের ওয়েভ-সাইট সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।
রংপুরের গরু ছাগলের মাংসের মূল্য বৃদ্ধিতে ক্রেতাদের নাভিঃশ্বাস

রংপুরের গরু ছাগলের মাংসের মূল্য বৃদ্ধিতে ক্রেতাদের নাভিঃশ্বাস

রংপুর প্রতিনিধি >>> রংপুরের পাগলাপীরের বিভিন্ন স্থানের হাট বাজারে গরু ছাগলের মাংসের মূল্য বৃদ্ধি পেয়েছে। ফলে মাংসের বেপরোয়া মূল্যে ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে যাওয়ায় পাগলাপীর অঞ্চলের ভূক্তভোগী ক্রেতা সাধারনের নাভিঃশ্বাস বেড়েই চলছে।

জানা গেছে পাগলাপীরের কাঁচাবাজার নামাহাট, শিবের বাজার, বিড়বাড়ী, পানবাজার, পরিষদের বাজার, হরকলি, শলেয়াশাহ্, নেকীরহাট, সেন্টারেরহাট, গলাকাটার বাজার, ত’বাজার, মমিনপুর, মুন্সিরহাট, ধনতোলা, বেতগাড়ী, খলেয়া গঞ্জিপুর, খাপড়িখাল, চন্দনের হাট, খিলালগঞ্জ সহ অঞ্চলের বিভিন্ন হাট বাজারে গরু ছাগলের মাংসের মূল্য হু হু করে বেড়ে গেছে। মাস পূর্বে ব্যবসায়িরা প্রতি কেজি গরুর মাংস ৫০০/৫৫০ টাকা এবং ছাগল-খাঁশি ৬০০/৬৫০ টাকা দরে বিক্রি করেছিলেন।এখন আকস্মির্ক মূল্য বেড়ে যাওয়ায় ব্যবসায়িরা সেই মাংস গরুর প্রতি কেজি ৬৫০ টাকা এবং ছাগল-খাঁশি ৭৫০/৮০০ টাকা দরে বিক্রি করতেছেন। অর্থাৎ প্রতি কেজিতে মূল্য বেড়েছে ৯০/১০০ টাকা। একই অবস্থা বিরাজ করছে মুরগির বাজারে। মাস পূর্বে ব্যবসায়িরা মুরগি পাকিস্তানি ১৫০/১৮০ টাকা, ব্রয়লার ১১০/১৩০ টাকা এবং দেশি ২০০/২২০ টাকা দরে বিক্রি করেছিলেন ব্যবসায়িরা।

এখন মূল্য বেড়ে যাওয়ায় ব্যবসায়িরা পাকিস্তানি মুরগি প্রতি কেজি ২৮০/৩০০ টাকা এবং ব্রয়লার ১৭০/১৯০ টাকা ও দেশি মুরগি ২৫০/৩০০ টাকা দরে বিক্রি করতেছেন। সরেজমিনে পাগলাপীর সহ অঞ্চলের ভূক্তভোগী ক্রেতা সাধারনের অভিযোগ সরকার ও প্রশাসনের হাটবাজারে যথাযথ তদারকি ও মনিটরিং ব্যবস্থা না থাকায় ব্যবসায়িরা ছিন্ডিগেট সৃষ্টি করে একেক দিন একেক সময় নানা অজুহাত দেখে ইচ্ছামাফিক দরে ক্রেতাদের কাছে গরু ছাগলের মাংস এবং মুরগি বিক্রি করতেছেন।###

পোস্টটি শেয়ার কারুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপনঃ

রাজনীতি

অপরাধ ও দুর্নীতি

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed By Mak Institute of Design |