ডেইলি তালাশ
ডেইলি তালাশ এ আপনাদের স্বাগতম। সময়ের সাথে সবার আগে বস্তুনিষ্ঠ সত্য সংবাদ পেতে আমাদের ওয়েভ-সাইট সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।
মুকসুদপুরে পাওনা টাকাকে কেন্দ্র করে এক নারী খুন

মুকসুদপুরে পাওনা টাকাকে কেন্দ্র করে এক নারী খুন

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি >>> গোপালগঞ্জের মুকসুদপুরে পাওনা টাকা না দেয়ায় জিমি বেগম (৩০) কে বাড়িতে ডেকে নিয়ে পিটিয়ে ও কুপিয়ে খুন করেছে অসিম মোল্লা নামে এক সুদ ব্যবসায়ী ও তার লোকজন। এই ঘটনায় তার স্বামী নুর আলমকে আহত অবস্থায় ফরিদপুর মেডিকেলে ভর্তি করা হয়েয়ে।
গতকাল রবিবার (৩ই জুলাই) রাত আনুমানিক সোয়া ১১টায় উপজেলার পাইকদিয়া গ্রামে এ খুনের ঘটনা ঘটে।
খুনের ঘটনায় ৮ জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। এ ঘটনায় নুর আলমের ভাই হাবিবুর রহমান মুন্সী বাদী হয়ে মুকসুদপুর থানায় ২৫ জনকে আসামী করে মামলা করেছেন।
মামলার বিবরনে জানা যায়, চলতি ইরি মৌসুমের আগে নিহতের স্বামী নুর আলম মুন্সী প্রতিবেশী অসিম মোল্লার কাছ থেকে ইরি মৌসুম শেষে ৫০ মন ধান দেবার প্রতিশ্রæতি দিয়ে ২ লাখ টাকা ধার নিয়েছিল। কিন্তু হঠাৎ করে বিলের পানি বেড়ে যাওয়ায় ধান তলিয়ে গিয়ে নষ্ট হয়ে যায়। যে কারনে ধান বা টাকা কোনটাই পরিশোধ করেতে পারেননি নুর আলম। এ নিয়ে স¤প্রতি এক শালিশ বৈঠকে আগামী ১৫ নভেম্বর টাকা পরিশোধ করার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই গতকাল রোববার অসিম মোল্লা তাদের বাড়িতে সালিশের কথা বলে স্বামী-স্ত্রীকে ডেকে নিয়ে যায় রাত সোয়া ১১ টার দিকে। সেখানে গেলে টাকা সুদ সমেত ফেরত দেয়া-নেয়া নিয়ে নিহতের স্বামীর সাথে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে তাকে মারধর করে অসিম মোল্লা ও তার লোকজন। এক পর্যায়ে কুপিয়ে মারাত্মক আহত করে। এ সময় স্ত্রী ছুটে গিয়ে স্বামীকে বাঁচাতে গেলে তাকেও কুপিয়ে ও পিটিয়ে মারাত্মক আহত করে।
পরে তাদেরকে স্থানীয়রা মারাত্মক আহত অবস্থায় মুকসুদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে জিমি বেগম সেখানে মারা যায়৷ তার স্বামী নুর আলমের অবস্থার অবনতি হলে ফরিদপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন মুকসুদপুর হাসপাতালের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডাঃ নিলয়। তিনি জানান, জিমি বেগমকে হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়।
মুকসুদপুর থানার ওসি মোঃ আবু বকর মিয়াা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পাওনা টাকাকে কেন্দ্র করে জিমি বেগম নামে এক নারী খুন হয়েছে৷ এ ব্যাপারে ২৫ জনকে আসামী করে থানায় মামলা হয়েছে। ইতোমধ্যে ৮জনকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। তাদেরকে আজ সোমবার আদালতে পাঠানো হবে। নিহতের লাশ ময়না তদন্তের জন্য গোপালগঞ্জ মর্গে প্রেরনের প্রক্রিয়া চলছে। এলাকার পরিস্থিতি স্বাভাবিক রয়েছে৷ পরিস্থিতি মোকাবেলায় অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন করা হয়েয়ে। ###

পোস্টটি শেয়ার কারুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপনঃ

রাজনীতি

অপরাধ ও দুর্নীতি

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed By Mak Institute of Design |