ডেইলি তালাশ
ডেইলি তালাশ এ আপনাদের স্বাগতম। সময়ের সাথে সবার আগে বস্তুনিষ্ঠ সত্য সংবাদ পেতে আমাদের ওয়েভ-সাইট সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।
মাদারীপুরে প্যারাসিটামল সংকট দেখিয়ে বেশি দামে বিক্রি > বেকায়দায় রোগিরা। নেই কোন মনিটরিং

মাদারীপুরে প্যারাসিটামল সংকট দেখিয়ে বেশি দামে বিক্রি > বেকায়দায় রোগিরা। নেই কোন মনিটরিং

ম.ম.হারুন অর রশিদ,মাদারীপুর প্রতিনিধি >>> চারদিকে নতুন করে আবার বেড়েই চলেছে করোনার প্রদূর্ভাব। এর মধ্যেই দেখা দিয়েছে মৌসুমি সর্দি-জ্বর-হাছি-কাশি। সব মিলিয়ে মাদারীপুরের ঘরে ঘরে কোন না কোন ভাবে জ্বর ও জ্বরের প্রদূর্ভাব চলছে।এ অবস্থায় দেখা দিয়েছে প্যারাসিটামল ট্যাবলেটের চাহিদা। আর এ সুযোগে মাদারীপুরে তৈরী করা হয়েছে প্যারাসিটামল জাতীয় ঔষদের সংকট।
ঔষধ মার্কেট ও ক্রেতা বিক্রেতা মাধ্যমে জানাযায়,মাদারীপুর সদর,কালকিনি,শিবচড়,রাজৈর ও ডাসার উপজের ঔষধ মার্কেট গুলিতে ব্যাপক ব্যাপক প্যারাসিটামল চাহিদা রয়েছে। কিন্তু কোন দোকানে পাওয়া যাচ্ছে না নাপা৫০০, নাপা এক্সটেন্ট ও নাপা এক্সট্রা,এইচ৫০০,এইচ এক্সআর,এইচ প্লাস ও এইচ পাওয়ার,রেনোভা–৫০০, রেনোভা এক্সআর ও রেনোভা প্লাস এবং এক্সপা,এক্সআর ট্যাবলেট,সিরাপ ও সাপোজেটরী। রাতারাতি হাওয়া হয়ে গেছে খুচরা ও পাইকারী দোকান থেকে।

রোগির অভিভাবক লিমা বেগম জানান, আমার বাচ্চার জন্য জ¦রের ঔষধ কিনতে গিয়ে কোন দোকানে পাইনি। ক্যান পাচ্ছি না জানতে চাইলে জানতে পারি কয়েক দিনের মধ্যে প্যারাসিটামল জাতীয় ঔষধের মুল্য বাড়ানো হবে। এ কথা জেনে বিক্রেতারা ঔষদ মজুদ করছেন এবং সংকট দেখিয়ে অধিক দামে বিক্রি করছেন তারা। ভূরঘাটা বাজারের হিরন ড্রাগ হাউজ এর মালিক কাউয়ুম মুন্সি জানান, অধিক মূল্য দিয়ে ক্রেতারা নাপা কিনতে চাচ্ছে কিন্তু সাপ্লাই না থাকায় বিক্রি করা যাচ্ছে না।

মজিদ বাড়ি ভূরঘাটা বরিশাল মেডিকেল হল ফার্মেসির মালিক জুয়েল সরদার বলেন,পাইকার দোকান গুলি ও কোম্পানি প্রতিনিধিরা ঔষধ সাপ্লাই দিচ্ছে না। হোলসেলারদের থেকে বেশি দামে ঔষধ কিনতে হচ্ছে।মাননীয় প্রধান মন্ত্রীর কাছে অনুরোধ বাজারে যাতে এবেল এবেল ঔষধ পাওয়া যায় এ ব্যাবস্থা করার জন্য। গ্রাম ডাঃ সৈয়দ শুকুর মাহমুদ সুজন জানান,সব ঘড়ে ঠান্ডা কাশি রোগি বেশি দেখা দিচ্ছে। ঘড়ে এক জনের হলে সবার হচ্ছে আমরা প্যারাসিটামল ঔষধ লিখছি কিন্তু রোগিরা পাচ্ছেন না তারা হয়রানি হচ্ছেন। বাংলাদেশ ড্রাগিষ্ট এন্ড ক্যামিষ্ট মাদারীপুর জেলা শাখার সদস্য ও গোপালপুর গীতা ফামের্সির মালিক তপন কুমার সরকার জানা,

অনেক দিন থেকেই বাজারে প্যারাসিটামল গ্রæপ সাপ্লাই নাই। আমাদের কাছে যা যা ছিল তা ফার্মাসিস্টদের দিয়েছি। শুধু প্যারাসিটামল না অনেক পোডাক্টের মাল সর্ট করে রেখে দাম বাড়াচ্ছে কোম্পানিগুলো আমরা বেশি দাম নিচ্ছি না।
এ কারনে হাতের নাগালে ঔষধ পাচ্ছেন না রোগিরা।
উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ এস কে এম শিবলি রহমান জানান,কোন বিক্রেতা কোন ঔষদের মূল্য বেশি নিলে অইন অনুযায়ি ব্যাবস্থা নেওয়া হবে।###

পোস্টটি শেয়ার কারুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপনঃ

রাজনীতি

অপরাধ ও দুর্নীতি

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed By Mak Institute of Design |