ডেইলি তালাশ
ডেইলি তালাশ এ আপনাদের স্বাগতম। সময়ের সাথে সবার আগে বস্তুনিষ্ঠ সত্য সংবাদ পেতে আমাদের ওয়েভ-সাইট সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।
শিরোনামঃ
পাঁচবিবিতে জীবনের নিরাপত্তার দাবীতে সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত মাদারীপুরের রাজৈরে জটিল রোগে আক্রান্তদের মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ কালকিনি ইউএনওকে কবিতার সৌজন্য কপি উপহার দিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মালেকুজ্জামান শিবগঞ্জে ১৫টি ইউপিতে ভিজিএফ’র চাল বিতরণ পাঁচবিবিতে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক পাঁচবিবিতে পাটের বাম্পার ফলন হওয়ার সম্ভাবনা তারাগঞ্জে গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণের জন্য ৫৬ লক্ষ টাকা ও ২০৭ মেট্রিক টন গম ও চাল ভাগ-বাটোয়ারা হেনোলাক্স গ্রুপের এমডি ও পরিচালক গ্রেপ্তার বিধবা নয়, তবুও পাচ্ছেন বিধবা ভাতা :>শিবগঞ্জে কার্ড বিতরনে অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগ টুঙ্গিপাড়ায় দুঃস্থ ও দরিদ্রদের মাঝে সেনাপ্রধানের ঈদ উপহার বিতরণ
বরগুনায় মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় মারধর আহত- ৪

বরগুনায় মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় মারধর আহত- ৪

বরগুনা সংবাদদাতা  >>> মাদক সেবনে বাধা দেয়ায় ক্ষুব্ধ হয়ে বরগুনা সদর উপজেলার খেজুরতলা গ্রামের আশ্রায়ন কেন্দ্রে ঘরে ঢুকে মারধর করেছেন মাদক সেবীরা। মারধরে আহত হয়েছেন মো: মিজান (২৮), স্কুলছাত্রী সানজিদা (১৫) ও লিমা (১২), গৃহবধূ মোসা: ফাতিমা (৩৫)। আহতদের গুরুতর অবস্থায় বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

মাদক সেবী ও হামলা কারিরা হলেন খেজুরতলা গ্রামের  নাসির (২৮), পিতা মো: বাবুল, মো: বশির (৩১), পিতা মো: বাবুল, মো: নাইম (২৭), পিতা আব্দুর রব, মো: শান্ত (২৮)।

বৃহস্পতিবার সিনেটের  আনুমানিক রাত ১০টার দিকে খেজুরতলা আশ্রায়ন কেন্দ্রে এ ঘটনা ঘটে।
আহত মোসা: ফাতিমা বলেন, আমরা ঘরের মধ্যে বসে কথা বলছি এমন সময় শান্ত, নাইম এসে আমার ভাই মিজানকে বলে আপনি একটু ঘরের বাইরে আসেন তখন আমি বলছি ও ঘরের বাইরে যাবেনা, এই বলার পর বশির, আর নাসির ঘরে ঢুকে মাইরধর শুরু করে। নাসির আমার ভাইকে জামার কলার ধরে টেনে বাইরে নামিয়ে গাছের চলা দিয়ে অরা চার জন পিটান শুরু করছে। পিটায় আর কয় মোরা বলে গাজা খাই ইয়াবা বেছি হেইয়া বলে তুই কও আর পুলিশে দরাইয়া দিবি বলে, তোর বাপেরে ফোন দে। আমি আর আমার দুই মেয়ে মারামারি থামাতে গেলে আমাদের ও ইচ্ছা মতো চলা দিয়ে পিটায়।আসে পাসের লোক জন ধরতে আসলে তাদেরও মাইরধর করে পালিয়ে যায়।

আহত ফাতিমার স্বামী ইমরান বলেন, আমি নামাজ পরতে মসজিদে গেছি, ফোন পেয়ে বাড়ি এসে দেখি আমার শালোক, বউ, ও মেয়েদের মেরে ঘরের সামনে ফেলে রেখেছে। ওদের হাসপাতালে নেয়ার জন্য ঘরে টাকা আনতে গিয়ে দেখি নগদ ৩০০০০ হাজার টাকা আমার মেয়ের কানের জিনিস দেখিনা। আমি স্থানীয় কয়েক জনকে ডেকে এনে দেখিয়ে ওদের নিয়ে হাসপাতালে যাই।

স্থানীয় বাসিন্দা শারমিন বলেন, আমরা মারামারির শব্দ শুনে দৌড়ে এসে দেখি নাসির, বশির, আরো দুইটা ছেলে মিজান তার বোনকে মারতেছে। আমি আর আমার ভাই মারামারি ঠেকাতে গেলে নাসির আমার পিঠে গুশি দেয় আমার চুল দরে ধাক্কা দিয়ে ফেলে দেয়। আর আমার ভাইয়ের হাতে বশির লাঠি দিয়ে বারি দেয়। এখানে আনেক লোক ছিল কেউ মারামারি ডেকাতে আসেনি কারন যেই আসে তাকেই মাইর শুরু করে।

এলাকাবাসিরা আরো জানান, রাত হলে আমরা কেউ এদের ভয়ে বাহিরে নামতে পারিনা। রাত হলেই আশ্রায়ন এদের দখলে চলে যায়। বিভিন্ন এলাকার লোকজন এসে আশ্রায়নের মধ্যে বসে মাদক সেবন করে। আমাদের সন্তানদের নিয়ে বিপদের মধ্যে আছি এরকম চলতে থাকলে যে কোন সময় মাদক আসাক্ত হতে পারে। এরা সব সময় মারা মারি করে এদের ভয়ে কেউ কোন কথা বলেনা। আমরা প্রশাসনের কাছে দাবি জানাই আশ্রায়ন যেনো মাদক মুক্ত হয়।

অভিযুক্ত নাসির মাদকের কথা অস্বীকার করে বলেন, অনেক দিন ধরে মিজান আমার বউকে অনৈতিক ভাবে খারাপ প্রস্তাব দিয়ে আসছে। আমার বউকে নিষেধ করা সত্যেও ভিন্নভাবে ভয়ভিতী দেখিয়ে, মিজান বলে আমার প্রস্তাবে রাজি না হলে তোমার ভাই সহ তোমার স্বামীকে মাদক দিয়ে পুলিশের হাতে ধরিয়ে দিব। আমার বউয়ের কাছে শোনার পরে মিজানের কাছে জিজ্ঞাসা করতে গেলে আমার সাথে তর্ক শুরু করে। এক পর্যায় মিজান আমার উপার হামলা করে এর পর মারমারি শুরু হয়। আমি আমার ভাই বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে ভর্তি। আমার হাত ভেঙ্গে গেছে আর ভাইয়ের শরীরের ভিন্ন জায়গায় জখম হয়েছে।

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বরগুনা  সদর থানার ওসি কে ফোন করলে ফোন- ০১৩২০১৫৬১৬১ এ পাওয়া যায়নি, কোর্টে মামলা করার  প্রস্তুতি চলছে ###

পোস্টটি শেয়ার কারুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপনঃ

রাজনীতি

অপরাধ ও দুর্নীতি

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed By Mak Institute of Design |