ডেইলি তালাশ
ডেইলি তালাশ এ আপনাদের স্বাগতম। সময়ের সাথে সবার আগে বস্তুনিষ্ঠ সত্য সংবাদ পেতে আমাদের ওয়েভ-সাইট সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।
তারাগঞ্জে ঢাকা গামী বাস-ট্রাক দাড়ানোর নির্দিষ্ট জায়গা নেই। মহাসড়কের উপর যানজট, চলাচলের বিড়ম্বনা।

তারাগঞ্জে ঢাকা গামী বাস-ট্রাক দাড়ানোর নির্দিষ্ট জায়গা নেই। মহাসড়কের উপর যানজট, চলাচলের বিড়ম্বনা।

তারাগঞ্জ (রংপুর) থেকেঃ রংপুর তারাগঞ্জ সদরের নতুন চৌপথী নামক স্থানে ঢাকা গামী বাস ট্রাক দাড়ানোর কোন নির্দিষ্ট স্থান না থাকায় রংপুর-দিনাজপুর মহাসকের উপর প্রতিদিন ২ শতাধিক বাস ট্রাক দাড়ানোর কারণে যানজট সৃষ্টি, চলাচলের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে পথচারীদের এবং ছোট বড় যানবহনদের।

দিনাজপুর, ঠাকুরগাও, পঞ্চগড়, নীলফামারী, সৈয়দপুর জেলাগুলোর রাজধানী ঢাকাসহ দেশের দক্ষিন পশ্চিমাঞ্চলের জেলায় যেতে হলে তারাগঞ্জ নতুন চৌপথী নামক স্থান মহাসড়কের উপর দিয়ে বাস ট্রাক সহ বিভিন্ন ধরনের যানবহন চলাচল করে। এই ব্যস্ততম সড়কের উপর সকাল সন্ধ্যা হলে ২ শতাধিক ঢাকা গামী বাস-ট্রাক রাস্তার ২ পাশে যত্রতত্র দীঘ্র সময় দাড় করিয়ে যাত্রী ও মালামাল ওঠানামা করে আসছে। এতে যানজটের সৃষ্টি সহ অন্যান্য বাহন ও পথচারীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হচ্ছে। এছাড়াও যাত্রী ছাউনী না থাকায় যাত্রীদের চরম দুর্ভোগ পোহাতে হয়। বর্ষাকালে বৃষ্টির পানিতে ভিজেই যাত্রীদের বাসে উঠানামা করতে হয়।

কিশোরগঞ্জ উপজেলার নিতাই ইউনিয়নের পীরপাড়া গ্রামের ঢাকামুখী যাত্রী মিজানুর রহমান জানান, তারাগঞ্জ নতুন চৌপথী নামক স্থানে সন্ধা হলে ঢাকামুখী বাস কাউন্টারগুলো সৈয়দপুর ও রংপুর মহাসড়কের পাশে দুই শতাধিক গাড়ী দাড়িয়ে থেকে যাত্রী উঠার সময় ঘন্টার পর ঘন্টা যানজট সৃষ্টি হয় এতে দুইপাল্লার যানবহন চলাচলে বিঘ্ন ঘটছে, তারাগঞ্জে বাস স্ট্যান্ড না থাকায়। এতে ছোটখাটো দুর্ঘটনা ঘটছে নিত্যদিনে।


প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাস স্ট্যান্ড নির্মাণের প্রতিশ্রæতি দেয়া হলেও তা একযুগেও বাস্তবায়নের কোন উদ্যোগ নেই। এ ব্যাপারে তারাগঞ্জ রিক্সা-ভ্যান শ্রমিক ইউনিয়ন নেতৃবৃন্দ আলোচনা এবং আন্দোলন করেছে। কিন্তু কোনও সুরাহা হয় নি।
মহাসড়কের উপর বাস-ট্রাক দাড় করানোর কারণে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে। স্কুল কলেজগামী শিক্ষার্থী সহ জনসাধারনকে চলাচল করতে হিমসিম খেতে হয়। অথচ কর্তৃপক্ষ নাগরিক সুবিধা নিশ্চিত করতে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহন করছেন না। উপজেলাবাসী অবিলম্বে কার্যকর ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য সংশ্লিষ্ট উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নিকট দাবি জানিয়েছেন।

তারাগঞ্জ হাইওয়ে থানার অফিসার ইনচার্জ, নুর নবীন প্রধান জানান, তারাগঞ্জ বাস স্ট্যান্ড থেকে কয়েকটি উপজেলার লোক এই স্ট্যান্ড ব্যবহার করে ঢাকা রাজধানীসহ দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের জেলাগুলোতে যেতে হয়। এখানে সরকারী কোন বাস স্ট্যান্ড না থাকায় মহাসড়কের ধারে গাড়ি থামিয়ে যাত্রী উঠানামা করেন।

পোস্টটি শেয়ার কারুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপনঃ

রাজনীতি

অপরাধ ও দুর্নীতি

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed By Mak Institute of Design |