ডেইলি তালাশ
ডেইলি তালাশ এ আপনাদের স্বাগতম। সময়ের সাথে সবার আগে বস্তুনিষ্ঠ সত্য সংবাদ পেতে আমাদের ওয়েভ-সাইট সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।
শিরোনামঃ
বসুন্ধরা মিডিয়া অ্যাওয়ার্ড লাভ করেছেন গোপালগঞ্জের প্রবীন সাংবাদিক রবীন্দ্রনাথ অধিকারী গোপালগঞ্জে স্বপ্ন ফেরিওয়ালা সংগঠনের বিনা মূল্যে স্বাস্থ্য সেবা প্রদান আমার স্বামীকে বাঁচান টুঙ্গিপাড়ায় বঙ্গবন্ধুর সমাধিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার শ্রদ্ধা বরগুনায় জেলা বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত বঙ্গোপসাগর উত্তাল ৫৮ জেলে উদ্ধার নিখোজ- ১৮ পাঁচবিবিতে শিক্ষক কর্তৃক ছাত্রকে মারধরের>প্রতিবাদ ও বিচারের দাবীতে মানববন্ধন বিয়ের প্রলোভনে মাদ্রাসা ছাত্রীকে ধর্ষণ, যুবক গ্রেপ্তার পাঁচবিবিতে ৫০০ পিচ ইয়াবা ট্যাবলেটসহ ২ জন মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার পাঁচবিবিতে সরকারি ঔষধ বিক্রির দায়ে ২টি ফার্মাসির অর্থদণ্ড
কোটালীপাড়ায় মামলা চলমান থাকা জমিতে আশ্রয়ন প্রকল্পের নির্মান কাজ শুরুর অভিযোগ

কোটালীপাড়ায় মামলা চলমান থাকা জমিতে আশ্রয়ন প্রকল্পের নির্মান কাজ শুরুর অভিযোগ

হেমন্ত বিশ্বাস, গোপালগঞ্জ >>>গোপালগঞ্জের কোটালীপাড়ায় “সত্ব সাব্যস্তক্রমে দখল স্থিরতরের” মামলা চলমান একটি জমিতে আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের ঘর নির্মনের কাজ শুরু করেছে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা প্রশাসনের এমন কাজে ভেংগে পড়েছে ওই অসহায় পরিবারটি।
কোটালীপাড়া উপজেলার ৩৮ নং মাঝবাড়ি মৌজার ১৪৩২ নং খতিয়ানের আরএস ৩৫৮৫ নং দাগের ৩০ শতাংশ জমি নিয়ে সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে জাহাঙ্গির হোসেন দাড়িয়া বাদী হয়ে “সত্ব সাব্যস্তক্রমে দখল স্থিরতরের” মামলা করেন। মামলাটি এখনও চলমান রয়েছে, মামলানং ২৭৪/২০২১।
জাহাঙ্গির হোসেন দাড়িয়া বলেন, ৩৮ নং মাঝবাড়ি মৌজার ১৪৩২ নং খতিয়ানের আরএস ৩৫৮৫ নং দাগে ছালেহা বেগমরে নামে রেকর্ডিয় ৩০ শতাংশ জমির মধ্যে ২০ শতাংশ জমি ছালেহার ওয়ারিশগণের কাছ থেকে ১৯৭৯ সালে ক্রয় করি। সেই থেকে আমি এই জমি ভোগ দখলে থাকলেও অজ্ঞাত কারনে এসএ ও বিআরএস রেকড বাংলাদেশ সরকারের নামে হয়। আমি অল্পশিক্ষিত হওয়ার কারনে ও জমি জমা সম্পর্কে ভাল না বুঝায় তৎকালিন সময় রেকড সংশোধন করতে পারিনি। আমার সন্তানেরা বড় হয়ে বিষয়টি বুঝর পর ২০২১ সালে গোপালগঞ্জ সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে “সত্ব সাব্যস্তক্রমে দখল স্থিরতরের” জন্য মামলা দায়ের করি। মামলাটি নিস্পত্তি হওয়ার আগে উপজেলা প্রসাশন আমার জমিতে আশ্রয়ন-২ প্রকল্পের ঘর নির্মনের জন্য বালু ভরাট করছে।
তিনি আরও বলেন, এই জমিতে আমি ধান রোপন করে যে ধান পেতাম তাই দিয়ে আমার পরিবারের সারা বছর চলত। এই জমি চলে গেলে পরিবার নিয়ে অনাহারে থাকতে হবে।
সংশ্লিষ্ট কতৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করে তিনি বলেন, যে জমি উপর আমার পরিবার নির্ভলশীল সেই জমি টুকু ফিরিয়ে দিতে প্রয়োজনীয় ব্যাবস্থা নেওয়া হোক।
মাঝ বাড়ি গ্রামের হুমায়ুন কবির দাড়িয়া, মেহেদী হাসান,ফারুক দাড়িয়া, জয়নাল দাড়িয়া সহ বৃদ্ধরা জানান, এই জমি ৪০ বছরের বেশি সময় ধরে জাহাঙ্গির হোসেন দাড়িয়া ভোগ দখল করে আসছেন।

কোটালীপাড়া উপেজেলা নির্বাহী অফিসার ফেরদৌস ওয়াহিদ বলেন, ওই জমিতে আদালতের নিষেধাজ্ঞা ছিলো। নিষেধাজ্ঞা ভ্যাকেট হওয়ার পরেই সেখানে আশ্রয়ন- ২ প্রকল্পের কাজ শুরু করা হয়েছে।###

পোস্টটি শেয়ার কারুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপনঃ

রাজনীতি

অপরাধ ও দুর্নীতি

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed By Mak Institute of Design |