ডেইলি তালাশ
ডেইলি তালাশ এ আপনাদের স্বাগতম। সময়ের সাথে সবার আগে বস্তুনিষ্ঠ সত্য সংবাদ পেতে আমাদের ওয়েভ-সাইট সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।
শিরোনামঃ
পাঁচবিবিতে জীবনের নিরাপত্তার দাবীতে সাংবাদিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত মাদারীপুরের রাজৈরে জটিল রোগে আক্রান্তদের মাঝে অনুদানের চেক বিতরণ কালকিনি ইউএনওকে কবিতার সৌজন্য কপি উপহার দিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা মালেকুজ্জামান শিবগঞ্জে ১৫টি ইউপিতে ভিজিএফ’র চাল বিতরণ পাঁচবিবিতে ইয়াবা ট্যাবলেটসহ মাদক ব্যবসায়ী আটক পাঁচবিবিতে পাটের বাম্পার ফলন হওয়ার সম্ভাবনা তারাগঞ্জে গ্রামীণ অবকাঠামো রক্ষণাবেক্ষণের জন্য ৫৬ লক্ষ টাকা ও ২০৭ মেট্রিক টন গম ও চাল ভাগ-বাটোয়ারা হেনোলাক্স গ্রুপের এমডি ও পরিচালক গ্রেপ্তার বিধবা নয়, তবুও পাচ্ছেন বিধবা ভাতা :>শিবগঞ্জে কার্ড বিতরনে অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগ টুঙ্গিপাড়ায় দুঃস্থ ও দরিদ্রদের মাঝে সেনাপ্রধানের ঈদ উপহার বিতরণ
কিশোরগঞ্জে পরিত্যক্ত গোবরের তৈরি শলাকার কদর বেড়েছে

কিশোরগঞ্জে পরিত্যক্ত গোবরের তৈরি শলাকার কদর বেড়েছে

কাওছার হামিদ, কিশোরগঞ্জ (নীলফামারী)প্রতিনিধিঃ নীলফামারীর কিশোরগঞ্জে পরিবেশ বান্ধব প্রাকৃতিক জ্বালানি গরু ও মহিষের গোবরের তৈরি,শলাকা বা লাকড়ি এলাকা ভেদে বিভিন্ন নামে পরিচিত। একসময় নিম্নবিত্ত পরিবারের লোকজন রান্নার জন্য গোবর কুড়িয়ে এনে ঘোসি, গৈঠা বা ঘুটে তৈরি করতো।
বর্তমানে সাশ্রয়ী জ্বালানী ব্যবহারের জন্য পরিত্যক্ত গরুর গোবরের তৈরি গৈঠা গ্রামাঞ্চলের গৃহবধূদের কাছে দিন দিন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে।


গোবরে চটকে শুকনো চিকন ২/৩ ফুট লম্বা লাঠি বা পাটখড়ির গায়ে মুন্ড হাতে মুষ্ঠিতে লাগিয়ে শলাকা গৈঠা বা ঘুটে তৈরী করা হয়। এসব তৈরিকৃত কাঁচা শলাকা,লাকড়ি,গুলো শুকানোর জন্য বাড়ির উঠানে বা রাস্তার পাশে রোদে দাঁড় করে রাখা হয়।
এটি সপ্তাহ খানিক রোদে শুকানোর পর জ্বালানির উপযোগী হয়। এভাবে নিত্যদিনের তৈরি শুকনো উপকরণ গুলো মজুদ রাখা হয়। অগ্রহায়ণ থেকে চৈত্র মাস পর্যন্ত এ জ্বালানি তৈরির কর্মযজ্ঞ চলে।
উপজেলার বড়ভিটা ইউনিয়নের মেলাবর গ্রামসহ বেশ কয়েকটি গ্রামে নারী অবসর সময়ে শলাকা, তৈরি করছেন। উপকরণ হিসেবে আগে পরিমাপ মতো পাটখড়ি বা লাঠি কেটে গোবর ও ধানের তুষ (গুড়া) একসঙ্গে মিশিয়ে পাটখড়ি বা লাঠির গায়ে মুষ্ঠিতে এঁটে রোদে শুকাতে দিচ্ছেন।

ওই গ্রামের গৃহবধু কৈলাশা (৬৫) বলেন, আমরা বিভিন্ন মাঠ, সড়কের পাশে বেঁধে রাখা গরুর পরিত্যক্ত গোবর সংগ্রহ করে তা দিয়ে শলাকা তৈরী করে শুকিয়ে জ্বালানি হিসেবে রান্না-বান্নার কাজে ব্যবহার করছি। এর ছাই শীতকালীন শাক-সবজিতে ব্যবহার করলে কুয়াশা ধরতে পারে না। প্রতি বছরে শুষ্ক মৌসুমে আমরা গবরে খড়ি তৈরি করি। নিত্যদিনে চুলায় জ্বালিয়ে অতিরিক্ত খড়ি মজুদ রাখি। যা বর্ষা মৌসুমে জ্বালানীর অনেকটা কাজে লাগে।

চাঁদখানা ইউনিয়নের বগুলাগাড়ী কামারপাড়া গ্রামের নরেশ চন্দ্র বলেন, গোবর দিয়ে তৈরি শলাকা গৈঠা বা ঘুটে তৈরি করে রোদে শুকানোর জন্য রাস্তার পাশে সারি সারি করে সাজিয়ে রাখেন অনেকেই। কয়েকদিন রোদে শুকালে রান্নার উপযোগী হয়।

কিশোরীগঞ্জ বহুমুখী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ে কৃষি শিক্ষক জুয়েল ইসলাম বলেন, গ্রামীণ নি¤œবিত্ত পরিবারের নারীরা বিভিন্ন মাঠ প্রান্তর, সড়ককের পাশ থেকে কাঁচা গবর তুলে এনে জ্বালানি উপকরণ তৈরি করছেন। এতে পরিত্যক্ত গবরের অপচয় রোদ হচ্ছে। এবং জ্বালানি হিসেবে ব্যাপক ভুমিকা পালন করছে। পাশাপাশি এর পুড়ানো ছাই ফসলি জমিতে প্রয়োগ করলে মাটির ক্ষারতা হ্রাস পায় এবং জমির উর্বরতা বৃদ্ধি করে। পরিবেশের জন্য ক্ষতি কর নয়।

পোস্টটি শেয়ার কারুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপনঃ

রাজনীতি

অপরাধ ও দুর্নীতি

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed By Mak Institute of Design |