ডেইলি তালাশ
ডেইলি তালাশ এ আপনাদের স্বাগতম। সময়ের সাথে সবার আগে বস্তুনিষ্ঠ সত্য সংবাদ পেতে আমাদের ওয়েভ-সাইট সাবস্ক্রাইব করে রাখুন।
কাশিয়ানীতে হিন্দু পরিবারের ১০ কোটি টাকার সম্পত্তি প্রভাবশালীর দখলে

কাশিয়ানীতে হিন্দু পরিবারের ১০ কোটি টাকার সম্পত্তি প্রভাবশালীর দখলে

গোপালগঞ্জ প্রতিনিধি >>> গোপালগঞ্জের কাশিয়ানীতে একটি হিন্দু পরিবারের ১০ কোটি টাকা মূল্যে ৫৬ শতাংশ সম্পত্তি স্থানীয় এক প্রভাবশালী দখল করে নিয়েছেন বলে অভিযোগ উঠেছে। পৈতৃক সুত্রে পাওয়া এ সম্পত্তি উদ্ধার করতে নাটোর থেকে কাশিয়ানীতে আসা ওই হিন্দু পরিবারের সদস্য রতন কুমার সাহাকে (৪০) প্রাণনাশ ও ভারতে চলে যাওয়ার হুমকি দিয়েছে। রতন কুমার সাহা নাটোর জেলার কানাইখালী গ্রামের মৃত নারায়ণ চন্দ্র সাহার ছেলে। এ ব্যাপারে রতন কুমার সাহা বাদী হয়ে কাশিয়ানী থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ অভিযোগ উঠেছে, সম্পত্তি দখলে থাকা কাশিয়ানী সদরের বাসিন্দা প্রভাবশালী মো. সাহেব আলী মোল্যার বিরুদ্ধে।

অভিযোগে জানা গেছে, রতন কুমার সাহার ওয়ারিশগণের রেখে যাওয়া ৩৬ নং কাশিয়ানী মৌজার এসএ ৫৯, ৬০, ৮২২, ৭৮৫ নং খতিয়ানের ৪০৬, ৪০৭, ৪০৮, ২৮৬ ও ২৮৭ নং দাগের ৫৩ শতাংশ জমি প্রভাবশালী সাহেব আলী মোল্যা জোরপূর্বক দখল করে রেখেছেন। এসব সম্পত্তি প্রভাবশালীর দখল থেকে উদ্ধার ও নামজারির আবেদনের জন্য রতন কুমার সাহা গত বৃস্পতিবার উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি)’র কার্যালয়ে যান। এ সময় সাহেব আলী মোল্যা তাকে দেখে অফিসের মধ্যেই মারধর করার জন্য উদ্যত্ত হন। এছাড়া ফের কখনও সম্পত্তির মালিকানা দাবি করলে রতনকে জীবনে মেরে ফেলার হুমকি দেন ওই প্রভাবশালী।

স্থানীয়দের কাছে অভিযোগ করেও কোনো প্রতিকার না পেয়ে শঙ্কা ও নিরাপত্তাহীনতায় ভূগছেন তিনি। সম্পত্তি উদ্ধার ও জীবনের নিরাপত্তার আশায় দ্বারে দ্বারে ঘুরছেন অসহায় ওই ভূক্তভোগী।

অভিযুক্ত সাহেব আলীর সাথে মুঠোফোনে কথা হলে তিনি হুমকি দেয়ার কথা অস্বীকার করে বলেন, ‘ওখানে তার কোন সম্পত্তি নেই। সম্পত্তি নিয়ে আদালতে এখনও মামলা চলমান রয়েছে। আপনি যা পারেন লিখেন।’

কাশিয়ানী থানার ওসি মোহাম্মদ মাসুদ রায়হান অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘তদন্তপূর্বক আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।###

পোস্টটি শেয়ার কারুনঃ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

বিজ্ঞাপনঃ

রাজনীতি

অপরাধ ও দুর্নীতি

© ২০২১ সর্বস্বত্ব সংরক্ষিত
Design & Developed By Mak Institute of Design |